কাশিমপুর কারাগার থেকে পালানো সেই কয়েদি শরীয়তপুরে গ্রেপ্তার

সময় ট্রিবিউন | ২৩ জুন ২০২২ ১৫:৪৪

কয়েদি আবু বক্কর সিদ্দিক-ফাইল ছবি কয়েদি আবু বক্কর সিদ্দিক-ফাইল ছবি

গাজীপুরের কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার-২ থেকে মই বেয়ে পালিয়ে যাওয়া হত্যা মামলার যাবজ্জীবন সাজা পাওয়া কয়েদি আবু বক্কর সিদ্দিককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

শরীয়তপুর পদ্মা সেতু দক্ষিণ থানার নাওডোবা মিনাকান্দি চৌরাস্তা এলাকা থেকে বুধবার দুপুর ১২টার দিকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

গ্রেপ্তার কয়েদি ৩৭ বছর বয়সী আবু বক্কর সিদ্দিক সাতক্ষীরার শ্যামনগর থানার চন্ডিপুর এলাকার মৃত কেছের আলীর ছেলে। কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার-২-এ বন্দি অবস্থায় ২০২০ সালের ৬ আগস্ট কারাগার থেকে পালিয়ে গিয়েছিলেন তিনি।

শরীয়তপুর পদ্মা সেতু দক্ষিণ থানার উপপরিদর্শক (এসআই) ফিরোজ আল মামুন সাংবাদিকদের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, বুধবার দুপুর ১২টার দিকে নাওডোবা এলাকায় ঘোরাফেরা করছিলেন আবু বক্কর সিদ্দিক। তার চলাফেরা সন্দেহজনক হলে তাকে আটক করে থানায় আনা হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের একপর্যায়ে তিনি কাশিমপুর কারাগার থেকে পালিয়ে আসার বিষয়টি জানান। পরে তাকে শরীয়তপুর আদালতে পাঠানো হয়।

তার বিরুদ্ধে হত্যা মামলা ও কাশিমপুর কারাগার থেকে পালিয়ে আসার ঘটনায় কোনাবাড়ী থানায় মামলা রয়েছে উল্লেখ করলে বিচারক তাকে শরীয়তপুর কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

এসআই মামুন আরও বলেন, আমরা তার গ্রামের বাড়ি সাতক্ষীরায় যোগাযোগ করেছি। এ ছাড়াও কাশিমপুর কারাগার থেকে পালিয়ে আসার ঘটনায় হওয়া মামলার নাম-পরিচয়ের সঙ্গে তার নাম-পরিচয় শতভাগ নিশ্চিত হয়েছি। বুধবার বিকেলে তাকে শরীয়তপুর কারাগারে পাঠানো হলে জেলার দিদারুল আলম (তৎকালীন কাশিমপুর কারাগারের জেলার) কয়েদি আবু বক্কর সিদ্দিককে দেখেই চিনে ফেলেন।

২০২০ সালের মই বেয়ে কয়েদি পালিয়ে যাওয়ার ঘটনায় একজন জেলারসহ দুজন কারারক্ষীর বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়া হয়।



আপনার মূল্যবান মতামত দিন: