বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে নবগঠিত মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ড, কেন্দ্রীয় কমিটির শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন

সময় ট্রিবিউন | ১৬ অক্টোবর ২০২২ ১৯:০৭

ছবিঃ সংগৃহীত ছবিঃ সংগৃহীত

বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদের অঙ্গ সংগঠন মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমাণ্ড, কেন্দ্রীয় কমিটির নবনির্বাচিত নেতৃবৃন্দ আজ ১৬ অক্টোবর রবিবার বিকাল ৪টায় ধানমণ্ডি বত্রিশে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন করেছেন। বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদনের সময় উপস্থিত ছিলেন নবগঠিত মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমাণ্ড, কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি মাহবুবুল ইসলাম প্রিন্স, সাধারণ সম্পাদক আল মামুন, সহ-সভাপতি এমআইকে রাশেদুল ইসলাম রাশেদ, ইঞ্জিনিয়ার আবু হানিফা, আশরাফুল ফাহাদ, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মেহেদী মাহমুদ রেজা, শের সম্রাট খতথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার কামরুজ্জামান রাজু, কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ফিরোজ আহমেদ সুজন, মাজেদুল ইসলামসহ প্রমুখ নেতৃবৃন্দ।

বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন শেষে সংগঠনের সভাপতি মাহবুবুল ইসলাম প্রিন্স বলেন, "১৯৭২ সালে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নিজ হাতে গড়া সংগঠন বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদের অঙ্গসংগঠন মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমাণ্ড সমগ্র বাংলাদেশে জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তান বীর মুক্তিযোদ্ধা পরিবারদের অধিকার আদায়ে কাজ করবে। মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমাণ্ডের পূর্বের মেয়াদোত্তীর্ণ কমিটিগুলো ঢেলে সাজানোর জন্য খুব শীঘ্রই প্রতিটি জেলা ও উপজেলায় সাংগঠনিক সফর শুরু করবে।"

সংগঠনের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক আল মামুন বলেন, "মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বাস্তবায়নই আমাদের অঙ্গীকার-এই শ্লোগানকে সামনে রেখে মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমাণ্ড প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্ন ও আদর্শ প্রতিষ্ঠার মধ্যে দিয়ে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বাস্তবায়ন করা সম্ভব। সমগ্র বাংলাদেশ বীর মুক্তিযোদ্ধার সন্তানদের ঐক্যবদ্ধ করে সম্পূর্ণ অযৌক্তিক সিদ্ধান্তের মাধ্যমে বাতিল হওয়া মুক্তিযোদ্ধা কোটা সংরক্ষণের দাবিতে খুব শীঘ্রই রাজপথে নামবে মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমাণ্ড। একাত্তরের পরাজিত স্বাধীনতা বিরোধী অপশক্তির দোসরদের রাজপথে মোকাবিলা করে বঙ্গবন্ধু কন্যা দেশরত্ন শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করতে রাজপথে অগ্রণী ভূমিকা পালন করা হবে। দেশের যেকোন প্রান্তে বীর মুক্তিযোদ্ধা পরিবারদের ওপর কোন আঘাত আসলে সেখানে যেয়ে তাদের পাশে দাঁড়াবে মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমাণ্ড। বীর মুক্তিযোদ্ধা পরিবার সুরক্ষা আইন প্রণয়নসহ সকল অধিকার প্রতিষ্ঠার দাবিতে আমাদের সংগ্রাম চলমান থাকবে। খুব শীঘ্রই আমরা পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠন ও দায়িত্ব বন্টন করে সাংগঠনিক কার্যক্রম শুরু করবো।"



আপনার মূল্যবান মতামত দিন: