বুয়েটের মাটি থেকে ছাত্র রাজনীতির ইতিহাসকে মুছে ফেলা যাবে না: লেখক ভট্টাচার্য

সিয়াম মাহমুদ | ১৪ আগস্ট ২০২২ ১৮:৪৬

সংগৃহীত সংগৃহীত

আবরার ফাহাদ হত্যার পর বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বুয়েট) ছাত্র রাজনীতি নিষিদ্ধ হওয়ার পরও ছাত্রলীগের ব্যানারে কর্মসূচি আয়োজন করায় বিক্ষোভ দেখিয়েছেন সেখানকার শিক্ষার্থীরা। এ প্রসঙ্গ টেনে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য বলেছেন, পরবর্তীতে যদি শিক্ষার্থীরা এমন আচরণ করে তাহলে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে কঠোর কর্মসূচি দিয়ে সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে বুয়েটকে আমরা অবাঞ্ছিত ঘোষণা করবো।

রোববার (১৪ আগস্ট) দুপুরে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন নেছা মুজিব স্মরণে আলোচনা সভা ও বঙ্গবন্ধু বইমেলায় এ কথা বলেন তিনি৷ রাজধানীর সরকারি তিতুমীর ছাত্রলীগের কলেজের উদ্যোগে কলেজের শহীদ বরকত মিলনায়তনে এই শোক সভার আয়োজন করা হয়।

জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে গতকাল সন্ধ্যায় বুয়েটের সেমিনার অডিটোরিয়ামে ‘বাংলাদেশ ছাত্রলীগ, বুয়েটের সাবেক নেতৃবৃন্দ’ ব্যানারে আলোচনা ও দোয়া অনুষ্ঠানের আয়োজন করে সংগঠনটির সাবেক নেতারা। এ খবরে বুয়েটের কয়েকশ শিক্ষার্থী মিলনায়তনের সামনে জড়ো হয়ে অবস্থান নেন। এরপর তড়িঘড়ি করে ছাত্রলীগের সাবেক নেতারা কর্মসূচি শেষ করে বের হলে ‘ছাত্রলীগ বিরোধী’ স্লোগান দিয়ে ‘প্রতিবাদ’ জানান শিক্ষার্থীরা। এসময় শিক্ষার্থীরা ‘ছাত্র রাজনীতির ঠিকানা, এই ক্যাম্পাসে হবে না’, ‘আবরারের রক্ত, বৃথা যেতে দেব না’, ‘ছাত্রলীগের ঠিকানা, এই ক্যাম্পাসে হবে না’।

এ ঘটনায় ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, বুয়েট ছাত্রলীগের সাবেক নেতাদের অংশগ্রহণে ১৫ আগস্ট উপলক্ষে শোক সভা ছিল গতকাল। কিন্তু তার বিরোধিতা করে সাধারণ শিক্ষার্থীদের নামে জামায়াত শিবিরের এজেন্ডা বাস্তবায়নের জন্য যে ন্যাক্কারজনক ঘটনা ঘটানো হয়েছে তাতে আমরা ধিক্কার জানাই।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে লেখক ভট্টাচার্য আরও বলেন, যতই চেষ্টা করেন আপনারা বাংলার মাটি থেকে বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে ধূলিসাৎ করতে পারবেন না। বুয়েটের মাটি থেকে ছাত্র রাজনীতির ইতিহাসকে মুছে ফেলতে পারবেন না। ধৈর্যের একটা সীমা থাকে। কিন্তু বাঁধ ভেঙে গেলে কিন্তু ছাত্রলীগ বসে থাকবে না। শোককে শক্তিতে পরিণত করে বঙ্গবন্ধুর আদর্শ বাস্তবায়নের তাগিদ দেন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক।

একই অনুষ্ঠানে বুয়েটের ঘটনায় বিষোদগার করে শিক্ষার্থীদের আদর্শে সমস্যা দেখছেন ছাত্রলীগের সহসভাপতি তিলোত্তমা শিকদার।

আয়োজন সংগঠনের সভাপতি রিপন মিয়ার সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক জুয়েল মোড়লের সঞ্চালনায় সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আ.ফ.ম. বাহাউদ্দিন নাছিম।



আপনার মূল্যবান মতামত দিন: