ঢাকায় সফরে আসলেন ভারতের পররাষ্ট্রসচিব শ্রিংলা

সময় ট্রিবিউন | ৭ ডিসেম্বর ২০২১ ১৮:৪৩

মঙ্গলবার ভারতের পররাষ্ট্রসচিব হর্ষ বর্ধন শ্রিংলাr সাথে পররাষ্ট্রসচিব মাসুদ বিন মোমেন বৈঠক করেন-ছবি: পিআইডি মঙ্গলবার ভারতের পররাষ্ট্রসচিব হর্ষ বর্ধন শ্রিংলাr সাথে পররাষ্ট্রসচিব মাসুদ বিন মোমেন বৈঠক করেন-ছবি: পিআইডি

২ দিনের সফরে মঙ্গলবার সকালে ঢাকায় পৌঁছেছেন ভারতের পররাষ্ট্রসচিব হর্ষ বর্ধন শ্রিংলা। হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে তাকে স্বাগত জানান পররাষ্ট্রসচিব মাসুদ বিন মোমেন।

সফরে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন ও পররাষ্ট্রসচিব মাসুদ বিন মোমেনের সঙ্গে বৈঠক ছাড়াও আগামীকাল বুধবার প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে ভারতের পররাষ্ট্রসচিবের সাক্ষাৎ করার কথা রয়েছে।

এ ছাড়া, আজ শ্রিংলা সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের সঙ্গেও সাক্ষাৎ করবেন।

ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, বাংলাদেশের সঙ্গে ভারতের সম্পর্ক 'নেইবারহুড ফার্স্ট পলিসি'র অন্যতম শক্তিশালী ভিত্তি।

এ বছরে বাংলাদেশ ও ভারত যৌথভাবে তাদের কূটনৈতিক সম্পর্ক প্রতিষ্ঠার ৫০ বছর পূর্তি উদযাপন করছে।

মৈত্রী দিবস উদযাপনের একদিন পর পররাষ্ট্র সচিবের বাংলাদেশে সফর ২ প্রতিবেশী দেশের মধ্যে বিস্তৃত সহযোগিতা পর্যালোচনা করার সুযোগ দেবে বলে ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে।

এই সফরে ১৫ থেকে ১৭ ডিসেম্বর ভারতের রাষ্ট্রপতি রাম নাথ কোবিন্দের বাংলাদেশ সফরের প্রস্তুতিসহ নানা বিষয়ে আলোচনা করবেন ভারতের পররাষ্ট্রসচিব।

এ দিকে, গতকাল নয়া দিল্লিতে অনুষ্ঠিত ভারত-বাংলাদেশ কূটনৈতিক সম্পর্কের ৫০তম বার্ষিকী 'মৈত্রী দিবস'র অনুষ্ঠানে শ্রিংলা বলেন, 'ভারত বাংলাদেশকে সহযোগিতা দেওয়া অব্যাহত রাখবে।'

তিনি আরও বলেন, '২ দেশের যৌথ যাত্রার পরবর্তী ৫০ বছর উভয় পক্ষের জন্য আরও বেশি সন্তুষ্টি নিয়ে আসবে। "মৈত্রী দিবস"র মানে "বন্ধুত্ব দিবস"। কিন্তু, "মৈত্রী"র অর্থ অনেক গভীর।'

ভারতের পররাষ্ট্রসচিব বলেন, এটি এমন একটি সম্পর্ক যার গভীরতা রয়েছে এবং সাধারণের বাইরেও একটি তাৎপর্য বহন করে। এটি এমন একটি বন্ধন যা সময়ের পরীক্ষায় দাঁড়িয়েছে।



আপনার মূল্যবান মতামত দিন: