"মোটরসাইকেল চুরি হলে জিডি নয় মামলা করুন"

সময় ট্রিবিউন ডেস্ক | ২৬ মে ২০২৩, ০১:১৩

সংগৃহীত
ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) প্রধান অতিরিক্ত কমিশনার মোহাম্মদ হারুন অর রশীদ বলেছেন, থানার ওসিরা মনে করেন ভুক্তভোগীরা চুরির মামলা করলে তদন্ত করতে হবে, কষ্ট করতে হবে। যাদের মোটরসাইকেল হারায় তাদের বলবো, সাধারণ ডায়েরি (জিডি) না করে, সরাসরি মামলা করুন। মামলা করে কপি নিয়ে গোয়েন্দা কার্যালয়ে আসুন। আমরা অপরাধীকে আইনের আওতায় আনব।
 
আজ বৃহস্পতিবার (২৫ মে) দুপুরে ডিএমপির মিডিয়া সেন্টারে মোটরসাইকেল চুরি সংক্রান্ত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন। 
 
এর আগে বুধবার হবিগঞ্জ এলাকা থেকে মোটরসাইকেল চুরি চক্রের মূলহোতা জাকারিয়া হোসেন হৃদয়কে গ্রেপ্তার করে ডিবির গুলশান বিভাগ। তার কাছ থেকে উদ্ধার করা হয় ১২টি মোটরসাইকেল।
 
ডিবি জানায়, গত ১০ মে ভাটারা থানায় একটি মোটরসাইকেল চুরির মামলা হয়। ওই মামলার ছায়া তদন্তে জাকারিয়ার সন্ধান পাওয়া যায়। তাকে গ্রেপ্তারের পর জিজ্ঞাসাবাদে জানা গেছে, এই সংঘবদ্ধ চোরচক্রের মূলহোতা তিনি। চক্রটি মাত্র ২৫-৩০ সেকেন্ডে চুরি করে পালিয়ে যেতে পারে। এই কাজে তারা মাস্টার চাবি ব্যবহার করে। চক্রে আরও বেশ কয়েকজন সদস্য রয়েছে বলে সে জানিয়েছে। তারা হলেন- জাহাঙ্গীর, জিতু, ইকবাল, মালিক মোহন, খালেক ও সুমন।
 
হারুন অর রশীদ বলেন, ঢাকা, গাজীপুর, নারায়ণগঞ্জসহ আশপাশের এলাকায় যত মোটরসাইকেল চুরি হয় এর সঙ্গে এই চক্রটি জড়িত। চক্রের সদস্য খালেক চোরাই মোটরসাইকেল নিয়ে বন্ধু মোটরসে ২৫-৩০ হাজার টাকায় বিক্রি করে। পরে তিনি সেটা কাজ করিয়ে ৫০-৬০ হাজার টাকায় অন্য কোথাও বিক্রি করে দেন। চক্রটির কাছ থেকে এখন পর্যন্ত ৫০টির বেশি মোটরসাইকেল উদ্ধার করা হয়েছে।
 
মহানগর ডিবিপ্রধান বলেন, ডিবির পক্ষ থেকে সবাইকে বলবো- ১০ টাকা লাগলেও মোটরসাইকেল সব সময় পার্কিংয়ে পার্ক করবেন। তারপরেও যদি চুরি হয়, তাহলে থানায় জিডি নয় মামলা করবেন। এরপর কপি নিয়ে ডিবি কার্যালয়ে আসবেন।
 
এসটি/এসকে 


আপনার মূল্যবান মতামত দিন:


জনপ্রিয় খবর