করোনা ভাইরাস ও সাধারণ সর্দি-জ্বরের মধ্য পার্থক্য

সময় ট্রিবিউন | ১৩ জানুয়ারী ২০২২ ১৬:৩১

ছবিঃ সংগৃহীত ছবিঃ সংগৃহীত

সারাবিশ্ব জুড়েই আবার বেড়েছে করোনা সংক্রমণ। বাংলাদেশেও গত কয়েক দিনে উদ্বেগজনক হারে বাড়ছে করোনা সংক্রমণের হার। উদ্বেগ বাড়াচ্ছে করোনার নতুন ধরন ‘ওমিক্রন’ নিয়ে। পজিটিভিটির হার বেশি থাকার অর্থ শতকরা যত জন করোনা পরীক্ষা করছেন তার মধ্যে একটা বড় অংশ করোনা আক্রান্ত। বিশেষজ্ঞদের মতে এই হার উচ্চ থাকার অর্থ করোনা আক্রান্ত হয়েও অপরীক্ষিত থেকে যাচ্ছেন অনেকে।

কারণ হিসেবে উঠে আসছে, বারবার সতর্ক করার পরেও উপসর্গ থাকলেও পরীক্ষা করাচ্ছেন না অনেকেই। এড়িয়ে যাচ্ছেন সাধারণ সর্দি কাশি ভেবে। বিশেষজ্ঞরা কিন্তু বলছেন সাধারণ জ্বর সর্দি কাশি থেকে কেবল উপসর্গের ভিত্তিতে করোনাকে আলাদাভাবে শনাক্ত করা অত্যন্ত কঠিন, ক্ষেত্রবিশেষে কার্যত অসম্ভব।

বিশেষজ্ঞদের আরও দাবি, টিকা নিয়েছেন এমন অনেকেই উপসর্গহীন বা মৃদু উপসর্গযুক্ত। ফলে অল্প সর্দি কাশি হলে পাত্তা দিচ্ছেন না অনেকেই। আর সেই সুযোগেই দাবানলের মতো ছড়াচ্ছে করোনা।

চিকিৎসকদের মতে যেহেতু এখন উদ্বেগজনক হারে করোনা সংক্রমণ দেখা যাচ্ছে তাই উপসর্গ মিলিয়ে ইনফ্লুয়েঞ্জা না করোনা তা যাচাই করা অর্থহীন। বরং করোনা হয়েছে ধরে নিয়েই করতে হবে পরীক্ষা। পরীক্ষায় নেগেটিভ এলে তবেই প্রমাণিত হবে করোনা নয়।



আপনার মূল্যবান মতামত দিন: