মুক্তিযোদ্ধার সন্তানকে ফাঁসাতে, হাতে মিথ্যে ব্যান্ডেস নিয়ে কোর্টে হাজির আপন চাচা

মো. জাকিরুল ইসলাম, হালুয়াঘাট প্রতিনিধি | ৬ অক্টোবর ২০২২ ১২:১৩

সংগৃহীত সংগৃহীত

বরিশালের বানারীপাড়ায় বীর মুক্তিযোদ্ধার এতিম সন্তানকে ফাঁসাতে হাতে মিথ্যে ব্যান্ডেস নিয়ে কোর্টে হাজির আপন চাচা সৈয়দ তাহের আলী।

উপজেলার সলিয়াবাকপুর ইউনিয়নের মাদারকাঠি গ্রামের মৃত্যু সৈয়দ হোসেন আলীর ছেলে সৈয়দ তাহের আলী গত ৪ অক্টোবর নিজ হাতে মিথ্যে ব্যন্ডিজ করে আদালত চত্ত্বরে বাড়তি সুযোগের জন্য হাজির হন।

অভিযোগে জানা যায়, সৈয়দ তাহের আলী বীর মুক্তিযোদ্ধা মরহুম আইয়ুব আলী ও অন্য দুই ভাইয়ের পৈত্রিক জমি জোর পূর্বক ভোগদখল করে আসছে পাশাপাশি সৈয়দ মোহাম্মদ আলীর জমি ও ভোগ দখলের পায়তারা করছে।

গত ২৪ সেপ্টেম্বর সৈয়দ হোসেন আলীর ছেলে সৈয়দ মোহাম্মদ আলী ও সৈয়দ তাহের আলীর সাথে জমি বন্টন করার বিষয় নিয়ে তর্ক বিতর্ক হলে তাহের আলী তার আপন ভাই মোহাম্মদ আলীর মাকে (তার নিজের ও মা) অশ্রাব্য ভাষায় গালি দিলে সৈয়দ মোহাম্মদ আলী এটা সহ্য করতে না পাড়ায় ছোই ভাইকে তিরস্কার করলে পরিস্থিতি খারাপের দিকে যাবার আসংকায় সেনাবাহিনীর গেজেট ভুক্ত বীর মুক্তিযোদ্ধা সৈয়দ আইয়ুব আলীর ছেলে সৈয়দ আনিচুজ্জামান সোহেল চাচাকে (মোহাম্মদ আলী) বাড়ি যেতে বললে চাচা তাহের আলী সোহেলের মাকে (বীর মুক্তিযোদ্ধার স্ত্রী) অশ্রাব্য ভাষায় গালি দিলে সোহেল প্রতিবাদ করে এবং মারামারির ঘটনা ঘটে।

দু পক্ষের মধ্যে মারামারির এক পর্যায়ে সোহেলকে তার চাচী অর্থাৎ তাহের আলীর স্ত্রী ইট দিয়ে মাথায় আঘাত করে। ইটের আঘাতে ও চাচা তাহের আলীর হামলায় সোহেল মাথা ও চোখে মারাত্মক জখমের স্বীকার হন। চাচা তাহের আলী ও হামলার স্বীকার হন।

পরবর্তীতে সোহেল বানারীপাড়া চিকিৎসা নিলে মাথায় গুরুতর আঘাতের জন্য ডাক্তারদের পরামর্শে বরিশাল শেবাচিমে উন্নত চিকিৎসার জন্য ভর্তি করান।

আহত সোহেলের বোন ইভা জানায় মারামারির কিছুক্ষন পর দুইজন লোক মটরসাইকেল জোগে এসে সোহেলের স্ত্রীকে হুমকি দিয়ে গেছে, বসত ভিটায় থাকতে পারবে না বলে।

বিষয়টি একান্ত পারিবারিক হওয়ায় সৈয়দ মোহাম্মদ আলী বিষয়টি সমাধানের চেষ্টা করেন পাশাপাশি ইউপি চেয়ারম্যান সিদ্দিকুর রহমানের স্মরনাপন্ন হলে তিনি ও বিষয়টি মিমাংসার জন্য বললে তাহের আলীর পক্ষ সময় ক্ষেপন করে কৌশলে মামলা এজাহার ভুক্ত করেন।

যদিও মোহাম্মদ আলী বাদী হয়ে বানারীপাড়া থানায় অভিযোগ দিলেও তা এজাহার ভুক্ত হয়নি।

তাহের আলী চিকিৎসা নিয়ে সুস্থ হয়ে এলাকায় দিব্বি ঘুরে বেড়াচ্ছেন। অথচ গত ৪ অক্টোবর হাতে ব্যান্ডেস করে সহানুভুতি পাবার জন্য বরিশালে আদালতে হাজির হন। আদালত থেকে এসেই তাহের আলী ব্যান্ডিস খুলে এলাকায় দিব্বি হাটাচলা করতেছেন।

একটি মুক্তিযোদ্ধা পরিবারকে নিরাপত্তা দেয়ার পরিবর্তে তারই আপন ভাই তার ছেলেদের উচ্ছেদ করার পায়তারা চালাচ্ছে বলে তার ভাই মোহাম্মদ আলী অভিযোগ করেন।

এলাকার একাধিক সূত্র থেকে জানা যায় পারিবারিক জমি জমা সংক্রান্ত সমস্যাদি সৈয়দ মোহাম্মদ আলী ও অপর ভাই বীর মুক্তিযোদ্ধা আইয়ুব আলীর ছেলে সোহেল সমাধানের চেষ্টা করলেও তাদের অপর ভাই সৈয়দ তাহের আলী বিষয়টি সমাধানের চেষ্টা না করে জটিলতা বজিয়ে রাখার পায়তারা চালিয়ে যাচ্ছে।



আপনার মূল্যবান মতামত দিন: