ট্রাফিক পুলিশ মোটরসাইকেলের কাগজ চাওয়ায় আগুন ধরিয়ে দিল যুবক!

রেজাউল ইসলাম, বরগুনা | ৬ অক্টোবর ২০২২ ১২:০৪

সংগৃহীত সংগৃহীত

বরগুনার পাথরঘাটায় মঙ্গলবার (৪ অক্টোবর) বিকাল ৫ঃ১০ মিনিটের দিকে জালিয়াঘাটা নামক এলায় ট্রাফিক পুলিশ মোটরসাইকেল এর কাগজপত্র দেখতে চাইলে নিজের মোটরসাইকেল পোড়ানোর চেষ্টা করেন গাড়ীর মালিক। মোটরসাইকেল মালিকের নাম আনিচুর রহমান। তিনি পার্শ্ববর্তী পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া উপজেলার তিতিকাটা এলাকার মজিবর মোল্লার ছেলে। জানা যায় তিনি প্রবাসী। তার মোটরসাইকেল এর রেজিষ্ট্রেশন নাম্বার পিরোজপুর ‘ল ১১-২৪৮৪’।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, মঙ্গলবার বিকাল- ৫ টার দিকে পাথরঘাটা উপজেলার জালিয়াঘাটা এলাকায় দায়িত্বরত ছিলেন পুলিশের ট্রাফিক বিভাগের টিএসআই শাহ আলম ও এটিএসআই জাহিদ।

এমন সময় একটি পালসার মোটরসাইকেলের গতিরোধ করে দায়িত্বরত পুলিশ সদস্যরা গাড়ীর কাগজ পত্র দেখতে চান মালিক আনিসুর এর কাছে।

মোটরসাইকেলের কাগজপত্র না দেখাতে পারায় মামলা দিতে চাইলে পুলিশের সাথে আনিচুরের বাকবিতন্ডা হয়।

একপর্যায়ে মোটরসাইকেল থানায় নিয়ে যেতে পুলিশ মোটরসাইকেলটি তাদের হেফাজতে নেয়। এসময় আনিচুর রহমান তার পকেটে থাকা লাইটার দিয়ে নিজের মোটরসাইকেলে আগুন ধরিয়ে দেয়।

পরে স্থানীয়দের সহায়তায় মোটরসাইকেলের আগুন নিভিয়ে উর্ধতন কর্মকর্তাদের সাথে কথা বলে মোটরসাইকেলটি আনিসুরের কাছে হস্তান্তর করা হয়।

এবিষয়ে কথা বলতে মোটরসাইকেল মালিক আনিসুর রহমানের সাথে কথা বলার চেষ্টা করা হয়। তবে একাধিকবার চেষ্টা করেও তার সাথে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।

এ বিষয়ে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (পাথরঘাটা সার্কেল) তোফায়েল হোসেন সরকার বলেন, কাগজপত্র দেখতে চাওয়ায় ওই প্রবাসী পুলিশের সাথে বাকবিতন্ডায় জড়ায়। একপর্যায়ে নিজেই মোটরসাইকেলে আগুন ধরানোর চেষ্টা করলে পুলিশ তাকে বাধা দেয় এবং মোটরসাইকেল আটক করে। পরে মুচলেকা দিয়ে ছেড়ে দেয়া হয়।



আপনার মূল্যবান মতামত দিন: