সরিষাবাড়িতে আশ্রয়ন প্রকল্পসহ বেশ কয়েকটি গ্রাম বন্যায় প্লাবিত

সরিষাবাড়ি প্রতিনিধি | ২১ জুন ২০২২ ১২:১৪

বন্যায় প্লাবিত জামালপুরের সরিষাবাড়ীর আশ্রয়ন প্রকল্প-ছবি: সময় ট্রিবিউন বন্যায় প্লাবিত জামালপুরের সরিষাবাড়ীর আশ্রয়ন প্রকল্প-ছবি: সময় ট্রিবিউন

সারাদেশের ন্যায় জামালপুরের সরিষাবাড়ীতে উজান থেকে নেমে আসা ঢল এবং প্রচন্ড বৃষ্টিতে যমুনা, ঝিনাই ও সুবর্ণখালী নদীর পানি আকস্মিকভাবে বৃদ্ধি পাওয়ায় উপজেলার ৫টি ইউনিয়নের প্রায় ৬০টি গ্রাম ও আশ্রয়ন প্রকল্প বন্যার পানিতে প্লাবিত হয়েছে।

সরিষাবাড়ি উপজেলায় বেশ কয়েকটি আশ্রয়ন প্রকল্প রয়েছে তার মধ্যে পোগলদিঘা ও চর আওনা আশ্রয়ন যমুনার অববাহিকায় অবস্থিত।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, উপজেলার পোগলদিঘা আশ্রয়ন কেন্দ্র বন্যার পানিতে নিমজ্জিত হয়েছে, এ কেন্দ্রে বেশ কয়েকটি পরিবার বসবাস করলেও অধিকাংশ পরিবার ঘর পাওয়ার পরেও এখানে বসবাসের জন্য আগ্রহ প্রকাশ করেনি। আগ্রহ প্রকাশ না করার কারন হিসেবে জানা যায়, প্রত্যেক বছর বন্যার সময় এখানে পানি ওঠে, পানি উঠার পরে এখানে থাকার মতো কোন ব্যবস্থা থাকে না তাই না থাকার ব্যাপারে অনেকেই সিদ্ধান্ত নেয়। বসবাসরত অনেকেই বলছেন, বন্যার সময় আমাদের কষ্টের সীমা থাকে না, এসময় সাহায্য সহযোগিতা পাওয়ার কথা থাকলেও তা ঠিক মতো পাই না

এদিকে পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় বন্ধ হয়ে গেছে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। তলিয়ে গেছে প্রায় ৩’শ হেক্টর পাট, রোপা-আমন বীজতলা, মরিচ, শাক সবজির ফসলী জমি। ভারী বর্ষণে শিশুরা-বাঘমারা ব্রীজের সংযোগ সড়ক আবারও ভাঙনের কবলে পড়েছে। যমুনা নদীর পানি বিপদ সীমার ৪৭ সেঃ মিঃ উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে বলে জামালপুর পানি উন্নয়ন বোর্ড সূত্রে জানাগেছে।

সরিষাবাড়ী উপজেলার বন্যা কবলিত পোগলদিঘা, সাতপোয়া, ভাটারা, কামরাবাদ, আওনা ও পিংনা ইউনিয়নে বন্যার পানি প্রবেশ করায় পাট ২’শ হেক্টর, আউস ধান ২৫ হেক্টর, রোপা আমন বীজতলা ১০ হেক্টর, শাক সবজী ২৫ হেক্টর, মরিচ ৫ হেক্টর ফসল পানিতে নিমজ্জিত হয়েছে।

বন্যা কবলিত এলাকায় সাহায্য সহযোগিতা না থাকায় এলাকাবাসী ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন।



আপনার মূল্যবান মতামত দিন: