চট্টগ্রামে পাহাড়ধসে দুই বোনসহ নিহত ৪

সময় ট্রিবিউন | ১৮ জুন ২০২২ ১১:৫৮

মরদেহ-প্রতীকী ছবি মরদেহ-প্রতীকী ছবি

চট্টগ্রাম নগরের আকবরশাহ থানা এলাকায় পৃথক পাহাড়ধসে চারজনের মৃত্যু হয়েছে।

গতকাল শুক্রবার দিবাগত রাত দেড়টা থেকে তিনটার মধ্যে ১ নম্বর ঝিল বরিশালঘোনা ও ফয়’স লেক লেকভিউ আবাসিক এলাকায় পৃথক এই পাহাড়ধসের ঘটনা ঘটে।

বরিশালঘোনায় নিহত ব্যক্তিদের মধ্যে একটি পরিবারের দুই বোন রয়েছেন। তাঁরা হলেন—মাইনুর আক্তার (২০) ও শাহীনুর আক্তার (২৪)। নিহত ব্যক্তিদের ফুফাতো বোন বলেন, দুই বোনেরই দুটি শিশুসন্তান আছে। মায়ের বুকে ঘুমিয়ে থাকায় শিশু দুটি বেঁচে গেছে। আর ফয়’স লেক লেকভিউ আবাসিক এলাকায় নিহত ব্যক্তিরা হলেন—লিটন (২৩) ও ইমন (১৪)।

এই ঘটনায় আরও দুজন আহত হন। তাঁরা হলেন—মাইনুর ও শাহীনুরের বাবা ফজলুল হক (৭০) ও মা রানু বেগম (৬০)।

ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন লিডার উচিন মারমা বলেন, গতকাল রাতে প্রচণ্ড বৃষ্টির সময় আকবরশাহ থানাধীন ১ নম্বর ঝিল এলাকায় পাহাড়ধসে একটি পরিবারের সদস্যরা চাপা পড়েন। পরে ফায়ার সার্ভিস ও পুলিশের সদস্যরা চারজনকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যান। আজ শনিবার ভোর সাড়ে পাঁচটা পর্যন্ত উদ্ধারকাজ চলে।

চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল পুলিশ ফাঁড়ি সূত্র জানায়, হাসপাতালে আনার পর শাহীনুর ও মাইনুরকে মৃত ঘোষণা করেন চিকিৎসক। তাঁদের মা–বাবাকে হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়।

শাহীনুরের ফুফাতো বোন রেশমা আক্তার বলেন, দুই বোন ও তাঁদের মা-বাবা একসঙ্গে ১ নম্বর ঝিলের বাসায় থাকতেন। পাহাড়ধসে তাঁদের দুই বোনের এক বছর ও ছয় মাস বয়সী দুটি মেয়ে বেঁচে যায়। তারা মায়ের বুকে ছিল বলে তিনি জানান।

অন্যদিকে দিবাগত রাত তিনটার দিকে ফয়’স লেক লেকসিটি আবাসিক এলাকায় অন্য এক পাহাড়ধসে লিটন ও ইমন নামের দুজনের মৃত্যু হয় বলে ফায়ার সার্ভিসের নিয়ন্ত্রণ কক্ষ থেকে জানানো হয়। ফায়ার সার্ভিস গিয়ে তাঁদের লাশ উদ্ধার করে। তাঁদের বিস্তারিত পরিচয় জানা যায়নি।



আপনার মূল্যবান মতামত দিন: