নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণার পর পুলিশের সাথে তুমুল সংর্ঘষ, আহত ৫০

জামালপুর প্রতিনিধি | ১৭ জুন ২০২২ ০০:০১

সংগৃহীত সংগৃহীত

জামালপুরের ইসলামপুর ও দেওয়ানগঞ্জ উপজেলার ৮ম ধাপে ৭টি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের কেন্দ্রে ফলাফল ঘোষণার পরপরই পরাজিত মেম্বার প্রার্থীর সমর্থকের সাথে পুলিশের তুমুল সংর্ঘষ পরিস্থিতি সামলাতে গুলি বর্ষন। ইভিএম বাক্স ভাংচুর, পুলিশসহ আহত৫০জন।

 গত বুধবার(১৬জুন) সকালে ইসলামপুর উপজেলার চিনাডুলী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ইভিএম পদ্ধতিতে ভোট গ্রহন শান্তিপূর্ণ পরিবেশে শুরু হলেও চিনাডুলী ইউনিয়নে ১৩নং বলিয়াদহ সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে প্রিজাইডিং অফিসার, কেন্দ্রে ফলাফল ঘোষণার পরেই পরাজিত মেম্বার প্রার্থীর সমর্থকদের সাথে তুমুল সংর্ঘষ বেধে যায়। এসময় পুলিশকে আক্রমন করে ইভিএম বাক্স ছিনিয়ে নেয়ার চেষ্টা করলে পুলিশ লাঠি চার্জ করে। তাতেও কোন সমাধান না হলে, ফাঁকা গুলি ও টিয়ার সেল ছুড়তে থাকে। পরে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এলে ইভিএম বাক্সগুলো গাড়িতে তুলার সময় সড়ক অবরোধ করলে তরিঘরি করে সবাই গাড়িতে উঠে যায়।সেখানে ইভিএম বাক্স ফেলে চলে যাওযার পর উত্তেজিত জনতা বাক্সগুলো ভাংচুর করে পানিতে ফেলে দেয়।

এঘটনায় পুলিশের এস আই হারুন অর রশিদ বাদী হয়ে ৪১জনের নামে ও আরো ৬০থেকে ৭০জনকে অজ্ঞাত করে ইসলামপুর থানায় মামলা করে। এঘটনায় প্রধান আসামী পরাজিত মেম্বার প্রার্থী শাজাহানকে গ্রেফতার করে জেল হাজতে প্রেরন করে।

 



আপনার মূল্যবান মতামত দিন: