পদ্মা সেতুর জনসভায় খুলনা অঞ্চল থেকে লাখো মানুষের অংশগ্রহনের ঘোষণা

শফিক স্বপন, মাদারীপুর  | ১৫ জুন ২০২২ ২৩:৪১

সংগৃহীত সংগৃহীত

 পদ্মা সেতুর উদ্বোধন উপলক্ষ্যে প্রধানমন্ত্রীর জনসভাস্থল মাদারীপুরের শিবচরের বাংলাবাজার ইলিয়াস আহমেদ চৌধুরী ঘাট পরিদর্শন করেছেন শেখ হেলাল এমপি ও আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ এসএম কামাল হোসেন। বুধবার সকালে পরিদর্শনকালে তিনি জনসভায় খুলনা অঞ্চল থেকে লাখো মানুষের অংশগ্রহনের ঘোষনা দেন। এসময় শিবচর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আলহাজ আঃ লতিফ মোল্লা, ওসি মোঃ মিরাজ হোসেন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। 

সাংবাদিকদেও শেখ হেলাল এমপি  বলেন,  বঙ্গবন্ধুর যে স্বপ্ন ছিল  পদ্মা সেতু তার কন্যার নেতৃত্বে বাস্তবায়িত হচ্ছে।  বিশেষ করে দক্ষিন পশ্চিমাঞ্চল বরিশাল খুলনা ও ঢাকা বিভাগের ৫ জেলার মানুষ তাই আনন্দে পাগল হয়ে গেছে।   খুলনা থেকে স্টীমারে ২ দিন লাগতো ঢাকা পৌছাতে। বাসে করে ১৬ -১৭ ঘন্টার ভোগান্তি। বঙ্গবন্ধুর কন্যার হাতে পদ্মা সেতু বাস্তবায়িত হওয়ায় এসকল এলাকার মানুষযের কি আনন্দ। ২৫ জুন  প্রমান হবে এই অঞ্চলের মানুষ কতটা কৃতজ্ঞ। আমাদের অঞ্চল থেকে প্রচুর মানুষ আসবে এ জনসভায়। আমরা ঠিক জানি না কত লাখ লোক হবে। আমাদের অঞ্চলে গ্রাম গঞ্জে সাড়া পড়ে গেছে। 

আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ এসএম কামাল হোসেন বলেন, বিএনপি ও ড.ইউনুস বিশ্বব্যাংককে বুঝিয়ে ছিল এ প্রকল্পে দূর্নিতী হয়েছে। কিন্তু কানাডার আদালতে তা মিথ্যা প্রমানিত হয়েছে। পদ্মা সেতু যেভাবে জননেত্রী শেখ হাসিনা করেছেন। দূর্নিতীবাজ ভোট ডাকাতরা যদি পদ্মা সেতু নিয়ে প্রশ্ন তুলে তাহলে জাতি হাসবে। মীর্জা ফখরুলরা হচ্ছে বড় দূর্নিতীবাজ । ওরা প্রকল্প বাস্তবায়নই করতো না। ধরে চুরি করে খাইতো। 

পত্রিকার উদ্ধৃতি দিয়ে তিনি আরো বলেন, ২০ হাজার কোটি টাকা ৪শ৩৯ টি প্রকল্পে মীর্জা ফখরুলরা গায়েব করে দিছে। বিদ্যুৎ ওরা ১ মেগাওয়াটও দিতে পারে নাই। বাঙ্গালীর ¯^প্নের সেতু পদ্মা সেতু ওদের অন্তরে জ্বালা। ওরা মনে করছে এত ষড়যন্ত্র করার পরও শেখ হাসিনা বাপের মতো গর্জে উঠলো। পদ্মা সেতু বাস্তবায়ন করলো। তাই ওরা মিথ্যা বলছে অপপ্রচার করছে। 



আপনার মূল্যবান মতামত দিন: