মহিলা মাদরাসার তিন শিশুকে ধর্ষণ

কুমিল্লা প্রতিনিধি | ২২ মার্চ ২০২২ ০০:২২

শিশু ধর্ষণ শিশু ধর্ষণ

কুমিল্লার বরুড়া উপজেলায় দুই দিনের ব্যবধানে একটি মহিলা মাদরাসার তিন শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। ভুক্তভোগী তিন শিশুর বয়সই ১০ বছরের কাছাকাছি। তারা বরুড়া উপজেলার ভবানীপুর ইউনিয়নের নরিন্দ্র গ্রামের মিছবাহুল উলুম মহিলা ও নূরানী মাদ্রাসার ছাত্রী।

সোমবার (২১ মার্চ) রাতে এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন বরুড়া থানার ওসি মো. ইকবাল বাহার মজুমদার। তিনি জানান, ধর্ষণের শিকার তিন শিশু ভবানীপুর ইউনিয়নের নরিন্দ্র গ্রামের দুই পরিবারের। তারা সম্পর্কে চাচাতো বোন। এ ঘটনায় দুই পরিবারের পক্ষ থেকে বরুড়া থানায় পৃথক দুটি অভিযোগ দেয়া হয়েছে।

বরুড়া থানার ওসি ইকবাল বাহার মজুমদার জানিয়েছেন, তিন শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগের দুইটি মামলা প্রক্রিয়াধীন। শিশুদের মেডিক্যাল পরীক্ষার জন্য মঙ্গলবার (২২ মার্চ) কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হবে।

শিশুদের পরিবারের পক্ষ থেকে ধর্ষণের ঘটনায় ওই এলাকার আলী আজ্জমের ছেলে ৫৫ বছর বয়সী আলী আকবরকে অভিযুক্ত করা হয়েছে।

অভিযুক্ত আলী আকবর তার বাড়িতে দিনের বেশিরভাগ সময় একা থাকেন।

গত ১৯ ও ২০ মার্চও প্রতিদিনের মতো শিশুরা মাঠে খেলতে গেলে তাদেরকে চকলেট ও ১০ টাকার প্রলোভন দেখিয়ে নিজ ঘরে নিয়ে যান আলী আকবর। এভাবে ২ দিনে একে একে তিন শিশুকে ধর্ষণ করেন তিনি। ঘটনার পর থেকে আলী আকবর পলাতক রয়েছেন।

এ বিষয়ে বরুড়া থানার ওসি ইকবাল বাহার মজুমদার সোমবার রাত ৯টায় বলেন, ‘তিন শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগের দুইটি মামলা প্রক্রিয়াধীন।’

এ ছাড়াও শিশুদের মেডিক্যাল পরীক্ষার জন্য আগামীকাল কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হবে বলেও জানান তিনি।



আপনার মূল্যবান মতামত দিন: