জাবি কামালউদ্দিন হলে বাঁধনের নবীনবরণ ও ডোনার সম্মাননা

মান্নান, জাবি প্রতিনিধি | ১৪ ডিসেম্বর ২০২১ ১৩:১৮

ছবিঃ সংগৃহীত ছবিঃ সংগৃহীত

‘একের রক্ত অন্যের জীবন, রক্তই হোক আত্মার বাঁধন’- স্লোগান ধারণকারী বাঁধন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় (জাবি) জোনের অন্তর্ভূক্ত আ ফ ম কামালউদ্দিন হল ইউনিটেরর উদ্যোগে নবীনবরণ ও ডোনার সম্মাননা অনুষ্ঠিত হয়। ১৩ ডিসেম্বর (সোমবার) হলের কমনরুমে এ অনুষ্ঠান আয়োজিত হয়।

আ ফ ম কামালউদ্দিন হল ইউনিটের সভাপতি জাহিদ হাসান শিশিরের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক মুজতাহিদ হোসেনের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আ ফ ম কামালউদ্দিন হলের প্রভোস্ট ও বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রক্টর আ স ম ফিরোজ উল হাসান। বিষেশ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন হলের ও্যার্ডেন ও আবাসিক শিক্ষকবৃন্দ।

অত্র অনুষ্ঠানে হলের ৪৯ তম ব্যাচকে নবীনবরণ এবং ৪৫ ও ৪৬ তম ব্যাচের ডোনারদের ডোনার সার্টিফিকেট প্রদান করা হয়। ৪৫ তম ব্যাচের ইতিহাস বিভাগের জাহিদ হাসান এবং ৪৬ তম ব্যাচের সরকার ও রাজনীতি বিভাগের মোহাম্মদ সোহেল চৌধুরীকে সর্বোচ্চ রক্তদাতার সম্মাননা দেওয়া হয়।

এছাড়াও ৪৫ তম ব্যাচের বাংলা বিভাগের সুমন রেজাকে ২০১৯ সালের সর্বোচ্চ রক্তসংগ্রহকারী এবং ৪৬ তম ব্যাচের আইন ও বিচার বিভাগের রায়হান মাহমুদ প্রধানকে ২০২০ সালের সর্বোচ্চ রক্তসংগ্রহকারীর সম্মাননা প্রদান করা হয়। এছাড়াও উক্ত অনুষ্ঠান উপলক্ষে আয়োজিত ফুটবল ম্যাচের গোলদাতা ও সেরা খেলোয়াড় এবং কুইজ প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেওয়া হয়।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রক্টর ও হলের প্রভোস্ট আ স ম ফিরোজ উল হাসান বলেন, ‘সংগঠনের মধ্যে সেই সংগঠনই শ্রেষ্ঠ যারা মানবতার সেবায় নিজেদেরকে নিয়োজিত রাখে। যাদের মধ্যে মানবিকতার অদম্য আকর্ষণ ও আগ্রহ রয়েছে তাদের দ্বারাই এ ধরনের কার্যক্রম সম্ভব। মানবিক সন্তুষ্টির জন্যই রক্তদান করা হয়ে থাকে। আমরা চাই রক্তদান সম্পূর্ণ নিঃস্বার্থ ভাবে করা হোক।’ এসময় তিনি হলের সকল শিক্ষার্থীকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার অনুরোধ করেন।

অনুষ্ঠানে বাঁধন, আ ফ ম কামালউদ্দিন হল ইউনিটের সভাপতি জাহিদ হাসান শিশির বলেন, ‘বিশ্ববিদ্যালয় গুলো স্বেচ্ছায় রক্তদানের ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। বিশেষ করে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের জনগণের প্রতি একটি সামাজিক ও মানবিক দায়বদ্ধতা রয়েছে। আমাদের উচিৎ রক্ত দিয়ে মানুষের পাশে থাকা, নিজে দিতে না পারলেও ব্যবস্থা করার চেষ্টা করা।’
এসময় বাঁধন আ ফ ম কামালউদ্দিন হল ইউনিটের উপদেষ্টা এ এস এম সায়েম, বাঁধন জাবি জোনের সভাপতি সামশুল ইসলাম রাজু, জাবি জোনের সাধারণ সম্পাদক রায়হান মাহমুদ প্রধান, জাবি জোনের উপদেষ্টা আবু হাসিব, বাঁধন কেন্দ্রীয় পরিষদের কোষাধ্যক্ষ সুশান্ত রায় এবং হলের ছাত্রনেতাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। এছাড়াও বাঁধন আ ফ ম কামালউদ্দিন হল ইউনিটের উপদেষ্টা ফরহাদ জামিল, ফয়সাল আহমেদ ফুয়াদ, ইশতিয়াক মোর্শেদ নিপুণ, সুমন রেজা, এনামুল হাসান, তৌহিদুল ইসলাম, রাজুয়ার হোসাইন, অ‍াতিকুর রহমান, হাসিবুল হাসান শান্ত, রথীন্দ্রনাথ রায়, খায়রুল ইসলাম এবং হল ইউনিটের কর্মীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় জোনের অন্যান্য হল ইউনিট থেকেও আমন্ত্রিত নেতৃত্ব ও কর্মীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।



আপনার মূল্যবান মতামত দিন: