'শূন্য থেকে ৫০ হাজারের জার্নিটা কখনোই সহজ ছিল না'

শাহরিয়ার নাসের, নোবিপ্রবি প্রতিনিধি | ৩ অক্টোবর ২০২২ ১৯:০৪

সংগৃহীত সংগৃহীত

স্কুল জীবনে বায়োলজিতে ভীষণ দুর্বল ছিলেন সৌরভ। বলা চলে বায়োলজি ছিল তার অপছন্দের বিষয়। কলেজে ওঠে ভালো শিক্ষকের সংস্পর্শ পেয়ে সেই বায়োলজিই হয়ে ওঠে তার সবচেয়ে পছন্দের বিষয়। নিজের মধ্যে বড় পরিবর্তন দেখতে পেয়ে তিনি অনুভব করতে থাকেন তার মতো তো আরো অনেকেরই বায়োলজিতে সমস্যা রয়েছে। সেই চিন্তা থেকেই ইউটিউবে শিক্ষা বিষয়ক একটি চ্যানেল খুলেন সৌরভ। আর ইউটিউব চ্যানেলের নাম দেন 'বায়োলজি আড্ডা'। শিক্ষার্থীদের নিকট এরই মধ্যে বেশ জনপ্রিয় হয়ে ওঠেছে তার ইউটিউব চ্যানেল। চলতি মাসে ৫০ হাজারে এসে পৌঁছেছে তার সাবস্ক্রাইবারের সংখ্যা। এদের বেশিরভাগই দেশের বিভিন্ন এলাকার স্কুল-কলেজ পড়ুয়া শিক্ষার্থী।

জাহিদুল আলম সৌরভ বর্তমানে পড়াশোনা করছেন নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (নোবিপ্রবি) ফার্মেসি বিভাগে চতুর্থ বর্ষে। এর আগে তিনি ব্রাহ্মণবাড়িয়ার অন্নদা সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় থেকে বিজ্ঞান বিভাগে এসএসসি ও নরসিংদীর আব্দুল কাদির মোল্লা সিটি কলেজ থেকে একই বিভাগে এইচএসসি শেষ করেন৷ পড়াশোনার পাশাপাশি তিনি সমাজসেবামূলক বিভিন্ন কাজের সঙ্গে জড়িত। শুভসংঘের বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সহ-সভাপতি হিসেবে কাজ করছেন তিনি।

জাহিদুল আলম সৌরভ জানান, অনেকটা শখের বশেই ২০১৯ সালের কোনো এক বিকেলে শুরু করেন ইউটিউবে মজার ছলে বায়োলজি পড়ানো। যেহেতু তার মূল লক্ষ্যই ছিল জীববিজ্ঞানকে মজার সাথে উপস্থাপন করবেন, তাই ইউটিউব চ্যানেলের নাম দেন 'Biology Adda'। আর শুরু করেন এসএসসি ও এইচএসসি জীববিজ্ঞানের নানান জটিল টপিককে সহজ ভাষায় মজার সাথে উপস্থাপন। ক্রমেই তার প্রাণবন্ত উপস্থাপনায় জনপ্রিয়তা লাভ করতে শুরু করে ইউটিউবে 'Biology Adda'-র ক্লাসগুলো। করোনা মহামারীর অলস সময়টা তার কন্টেন্ট তৈরিতে নতুন গতি এনে দেয়।

জানতে চাইলে জাহিদুল আলম সৌরভ বলেন, 'শিক্ষামূলক কন্টেন্ট তৈরিতে এখনো আমরা অনেকটাই পিছিয়ে। আমি বিশ্বাস করি এখানে ব্যাপক সম্ভাবনা রয়েছে বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে। জীববিজ্ঞান ব্যাপারটাকে অনেকেই শুধু মুখস্থনির্ভর একটা বিষয় মনে করে। কিন্তু মজার সাথে একটু ব্যতিক্রমভাবে উপস্থাপন করা হলে জীববিজ্ঞান অন্যতম আকর্ষণীয় একটা বিষয়।'

তিনি আরো বলেন, 'শূন্য থেকে ৫০,০০০ এর জার্নিটা কখনোই সহজ ছিল না। এটা আমাকে শিখিয়েছে কি করে চরম প্রতিকূলতার মাঝেও টিকে থাকতে হয়, নিজের কিছু পাগলামিতে বিশ্বাস রাখতে হয়, বড় স্বপ্ন দেখতে হয়৷ আলহামদুলিল্লাহ। আমি ভীষণভাবে কৃতজ্ঞ 'Biology Adda' কে আজকের এই অবস্থানে নিয়ে আসতে সাহায্য করা, ভালোবাসা দেয়া প্রতিটি মানুষের প্রতি। ভবিষ্যতে আমার ইচ্ছে আছে নবম-দশম এবং উচ্চমাধ্যমিক পর্যায়ের জীববিজ্ঞান নিয়ে আরও অনেক ব্যাপকভাবে কাজ করার।'



আপনার মূল্যবান মতামত দিন: