জবিতে বর্ণাঢ্য আয়োজনে 'পরিসংখ্যান দিবস' উদযাপন

শিবলী নোমান,জবি প্রতিনিধি | ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২২ ২০:৫০

আনন্দ র‍্যালি আনন্দ র‍্যালি

নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) পরিসংখ্যান বিভাগের উদ্যোগে 'জাতীয় পরিসংখ্যান দিবস ২০২২' উদযাপিত হয়েছে। 'গুণগত পরিসংখ্যান উন্নত জীবনের সোপান' এই স্লোগানে দিবসটি উদযাপন করেছে বিভাগের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা।

রোববার (২৭ ফেব্রুয়ারি) দিবসটি উদযাপন উপলক্ষে সকাল ১০ টায় বিশ্ববিদ্যালয়ে একটি আনন্দ র‍্যালি করা হয়। র‍্যালিটি পরিসংখ্যান বিভাগের সামনে থেকে শুরু হয়ে বিজ্ঞান ভবন প্রদক্ষিণ করে, কলা ভবন হয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের নতুন একাডেমিক ভবন ও রফিক ভবনের সামনে এসে শেষ হয়। এসময় জাতীয় পরিসংখ্যান দিবস সফল হোক এই স্লোগানে পুরো ক্যাম্পাস মুখরিত হয়ে উঠে।

র‍্যালি শেষে বিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. রবীন্দ্রনাথ মন্ডল, পরিসংখ্যান বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. মো. শেখ গিয়াস উদ্দিন, শিক্ষক সমিতির সহ-সভাপতি ও বিভাগের অধ্যাপক ড. মো. ছিদ্দিকুর রহমান বক্তব্য রাখেন। 

এসময় বক্তারা বলেন, জীবনের প্রতিটি ক্ষেত্রে পরিসংখ্যানের গুরুত্ব রয়েছে। তা সত্যিকার অর্থে এর বাস্তব প্রয়োগ করতে হবে। আমাদের সবাইকে সঠিক পরিসংখ্যান চর্চা করতে হবে। পরিকল্পিত অর্থনীতির জন্য সঠিক পরিসংখ্যান অপরিহার্য। আর এ কারণে দিন দিন বাড়ছে পরিসংখ্যানের গুরুত্ব। সে গুরুত্বকে প্রাধান্য দিয়ে দেশে জাতীয় পরিসংখ্যান দিবস পালিত হয়ে আসছে। দেশকে উন্নয়নশীল থেকে উন্নত রাষ্ট্রে পরিণত করতে প্রতিটি সেক্টরে নির্ভুল ও সময়ানুগ পরিসংখ্যানের প্রয়োগ নিশ্চিত করতে হবে। দেশের সকল খাতে পরিসংখ্যানের প্রয়োগ বৃদ্ধি পেলে অর্থনৈতিক উন্নয়নের গতি আরো ত্বরান্বিত হবে। এসময় বক্তারা জাতীয় পরিসংখ্যান দিবস সফলতা কামনা করেন।

এছাড়াও বিভাগের অধ্যাপক ড. আবু সাইদ মো. রিপন রউফ; সহযোগী অধ্যাপক ড. মো. আতিকুল ইসলাম; সহকারী অধ্যাপক মো. সানোয়ার হোসেন, মানসুরা বেগম, রেবেকা সুলতানা, শাহ্জাদী আইরিন, শাহানাজ পারভীন, মোঃ সাইফুল্লাহ সাকিব; প্রভাষক সালমা আক্তার সহ বিভাগের অন্যান্য শিক্ষকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। এছাড়াও বিভাগের বিভিন্ন ব্যাচের শিক্ষার্থী সহ কর্মকর্তা কর্মচারীরা র‍্যালিতে অংশ নেয়। এছাড়াও দিবসটি উপলক্ষে বিভাগের উদ্যোগে কুইজ প্রতিযোগিতার ও আয়োজন করা হয়।

২০২০ সালের ৮ জুন মন্ত্রী পরিষদের বৈঠকে প্রতিবছর ২৭ ফেব্রুয়ারি জাতীয়ভাবে পরিসংখ্যান দিবস পালনের সিদ্ধান্ত নেয় সরকার। ২০১৩ সালের ২৭ ফেব্রুয়ারি জাতীয় সংসদে পরিসংখ্যান আইন পাস করা হয়। এ আইনের ভিত্তিতে পরিসংখ্যান ব্যবস্থাপনা উন্নয়নে আমূল পরিবর্তন আসে। এ দিবসটির স্মরণেই ২৭ ফেব্রুয়ারিকে জাতীয় পরিসংখ্যান দিবস হিসেবে বেছে নেওয়া হয়। পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের পরিসংখ্যান ও তথ্য ব্যবস্থাপনা বিভাগ এবং বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরো (বিবিএস) যৌথভাবে ‘জাতীয় পরিসংখ্যান দিবস’ পালন করে আসছে। দ্বিতীয়বারের মতো এবার জাতীয় পরিসংখ্যান দিবস পালিত হয়েছে। এর আগে বাংলাদেশে ২০১০ সাল থেকে অন্যান্য দেশের সঙ্গে ২০ অক্টোবর বিশ্ব পরিসংখ্যান দিবস পালিত হয়ে আসছে।



আপনার মূল্যবান মতামত দিন: