বিশ্বব্যাংকের কাছে ৫০০ কোটি ডলার ঋণ চেয়েছে বাংলাদেশ

সময় ট্রিবিউন | ২৯ এপ্রিল ২০২২ ০৩:৫৫

ছবিঃ সংগৃহীত ছবিঃ সংগৃহীত

বিশ্বব্যাংকের ইন্টারন্যাশনাল ডেভেলপমেন্ট অ্যাসোসিয়েশন (আইএডিএ) থেকে আরও ৫০০ কোটি ডলারের ঋণ সহায়তা চেয়েছে বাংলাদেশ। আগামী তিন বছরের জন্য এ অর্থ চাওয়া হয়েছে। বিশ্বব্যাংক-আন্তর্জাতিক মানিটারি ফান্ড (ব্যাংক-ফান্ড) এর বসন্তকালীন সভায় এ চাহিদার কথা জানিয়েছেন বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রতিনিধি দল।

বর্তমানে বাংলাদেশকে যে পরিমাণ অর্থ দেওয়া হচ্ছে তার চেয়ে কম দেওয়া হবে না বলে বিশ্বব্যাংকের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

বিশ্বব্যাংকের প্রধান কার্যালয় ওয়াশিংটনে অনুষ্ঠিত ওই বৈঠকে উপস্থিত বাংলাদেশ প্রতিনিধি দলের একজন সদস্য এ তথ্য জানিয়েছেন। সপ্তাহব্যাপী এ বৈঠক গত ২৪ এপ্রিল শেষ হয়েছে। সভায় বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর ফজলে কবির ১১ সদস্যের বাংলাদেশ প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দেন।

আইডিএর তিন বছর মেয়াদি তহবিল পরিকল্পনার অধীনে বর্তমান মেয়াদে ৪ দশমিক ২ বিলিয়ন ডলার ঋণ সহায়তা পেয়েছে বাংলাদেশ। ২০২২ থেকে ২৫ অর্থবছরের জন্য আইডিএর প্যাকেজে ৯৩ বিলিয়ন ডলার তহবিল রয়েছে।

দারিদ্র্যতা নিরসন, বৈষম্য হ্রাস, অর্থনৈতিক উন্নয়নের মাধ্যমে মানুষের জীবনযাত্রার মানোন্নয়নে এ তহবিল থেকে সহায়তা দেওয়া হয়ে থাকে। শূন্য বা সামান্য সুদে এ তহবিল থেকে এ পর্যন্ত ৭৪টি দেশকে ঋণ সহায়তা দেওয়া হয়েছে।

ইআরডির এক বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, সভায় বিশ্বব্যাংক গ্রুপের পক্ষ থেকে বাংলাদেশের সামস্টিক অর্থনীতি ব্যবস্থাপনার বিষয়ে সন্তোষ প্রকাশ করা হয়েছে। বিশেষত, কোভিড মহামারি সাফল্যের সাথে মোকাবেলার পাশাপাশি অর্থনৈতিক পুনরুদ্ধার ও আর্থিক প্রণোদনা বাস্তবায়নে সরকারের কার্যকর ভূমিকার প্রশংসা করা হয়েছে। এছাড়াও বাংলাদেশের ধারাবাহিক উন্নয়নের বিষয়টি উল্লেখ করে আগামীতে বাংলাদেশের উন্নয়ন কার্যক্রমে বিশ্বব্যাংকের সহযোগিতা আরও বৃদ্ধি করার বিষয়ে আশাবাদ ব্যক্ত করা হয়েছে।

বাংলাদেশ প্রতিনিধিদলে অন্যদের মধ্যে ছিলেন বিশ্বব্যাংকের বিকল্প নির্বাহী পরিচালক মোহাম্মদ শফিউল আলম, অর্থ বিভাগ সিনিয়র সচিব আব্দুর রউফ তালুকদার, যুক্তরাষ্ট্রে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত এম শহিদুল ইসলাম, অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের সচিব ফাতিমা ইয়াসমিন।



আপনার মূল্যবান মতামত দিন: